bangladesh
 14 Mar 19, 06:20 AM
 17             0

বহুপাক্ষিক সমাজ গড়া বাংলাদেশ-ভারতের জন্য সমান চ্যালেঞ্জ।। ওআরএফ প্রেসিডেন্ট ড. সমীর শরণ

বহুপাক্ষিক সমাজ গড়া বাংলাদেশ-ভারতের জন্য সমান চ্যালেঞ্জ।। ওআরএফ প্রেসিডেন্ট ড. সমীর শরণ

নিউজ ডেস্ক: উদার, বহুপাক্ষিক ও গণতান্ত্রিক সমাজ গড়া বাংলাদেশ-ভারত উভয় দেশের জন্যই সমান চ্যালেঞ্জ বলে মন্তব্য করেছেন ভারতের অবজারভার রিসার্চ ফাউন্ডেশনের (ওআরএফ) প্রেসিডেন্ট ড. সমীর শরণ। বুধবার ( ১৩ মার্চ) ঢাকায় আয়োজিত এক লেকচারে তিনি একথা বলেন। রাজধানীর ইস্কাটনে বিস মিলনায়তনে সেন্টার ফর গভর্নেন্স স্টাডিজ (সিজিএস) ‘ভারত, বাংলাদেশ ও ইন্দো প্যাসিফিক’-শীর্ষক আয়োজিত এ লেকচারে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংস্থাটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আতাউর রহমান। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন জিল্লুর রহমান।

অনুষ্ঠানে ভারতের প্রখ্যাত প্রতিষ্ঠান অবজারভার রিসার্চ ফাউন্ডেশনের (ওআরএফ) প্রেসিডেন্ট ড. সমীর শরণ বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের সমাজের মধ্যে অনেক সাদৃশ্য রয়েছে। দু’দেশেই উগ্রাবাদ ও জঙ্গিবাদের ঝুঁকি রয়েছে। এছাড়া উদার, বহুপাক্ষিক ও গণতান্ত্রিক সমাজ গড়া উভয় দেশের জন্যই সমান চ্যালেঞ্জ। আঞ্চলিক স্বার্থ রক্ষায় ভারত ও বাংলাদেশ একযোগে কাজ করতে পারে। এ অঞ্চলের অবকাঠামো খাত, কানেকটিভিটি, এনার্জি খাত, প্রযুক্তি ইত্যাদি ক্ষেত্রে দু’দেশের একযোগে কাজের সুযোগ রয়েছে। আঞ্চলিক স্বার্থ রক্ষায় বিশ্বের প্রভাবশালী দেশ যেমন চীন, যুক্তরাষ্ট্র, জাপান ইত্যাদি দেশের সঙ্গে যৌথ দরকষাকষির ক্ষেত্রেও দু’দেশ একযোগে কাজ করতে পারে বলে তিনি মন্তব্য করেন ভারতের এই বিশেষজ্ঞ।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের জনগণের মধ্যে যোগাযোগ আরো বাড়াতে হবে। বিশেষ করে কম্যুনিটি পর্যায়ে এই যোগাযোগ আরো বাড়ানো প্রয়োজন। দু’দেশের মানুষের মধ্যে যোগাযোগ বাড়ালে অনেক সমস্যার সমাধান খুব সহজেই হওয়া সম্ভব। অনুষ্ঠানে এক প্রশ্নের উত্তরে সমীর শরণ বলেন, চীনের বেল্ট অ্যান্ড রোড উদ্যোগে ভারত অংশ না নিলেও ভারত ও চীন একযোগে বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিনিয়োগ করেছে। এআইবি ব্যাংকে ভারত দ্বিতীয় বৃহত্তর অংশীদার। তবে বেল্ট অ্যান্ড রোড উদ্যোগে বাংলাদেশের যুক্ত হওয়াটা বাংলাদেশের নিজস্ব সিদ্ধান্ত। বাংলাদেশ সে সিদ্ধান্ত নিতেও পারে। সেটাই স্বাভাবিক।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')