bangladesh
 07 Aug 18, 06:08 PM
 168             0

শরীয়তপুরে লঞ্চঘাট ধসে ৫ নিখোঁজের হদিশ মেলেনি

শরীয়তপুরে লঞ্চঘাট ধসে ৫ নিখোঁজের হদিশ মেলেনি

নিউজ ডেস্কঃ শরীয়তপুরের নড়িয়ায় নদী ভাঙন চলছে। আজ মঙ্গলবার দুপুরে নড়িয়ার সাধুর বাজার লঞ্চঘাটের ৫০ মিটার জায়গা ধসে পাঁচ ব্যক্তি নিখোঁজ হয়েছে। ওই লঞ্চঘাটের আটটি দোকান বিলীন হয়ে গেছে। আজ মঙ্গলবার দুপুর দুইটার দিকে কেদারপুর ইউনিয়নের সাধুরবাজার লঞ্চঘাটে এ ঘটনা ঘটে। এসময় স্থানীয়রা নদী থেকে ১২ ব্যক্ততিকে উদ্ধার করে নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। নিখোঁজ ব্যক্তিরা হলেন,চাকধ গ্রামের নাসির উদ্দিন হাওলাদার,পাচু খাঁর কান্দি গ্রামের মোশারফ চোকদার, কেদারপুর গ্রামের নাসির উদ্দিন,আইটেল মোবাইল ফোন কোম্পানীর বিক্রয় কর্মী আল আমীন হাসান। নড়িয়া উপজেলা প্রশাসন সূত্র জানায়,দুই মাস ধরে নড়িয়া উপজেলার পদ্মা নদীর তীরবর্তি এলাকা ভাঙছে। মোক্তারেরচর, কেদারপুর, ঘরিসার ও নড়িয়া পৌরসভার ১০টি গ্রামে ভাঙনের তিব্রতা বেশি। দুই মাসের ভাঙনে প্রায় চার শতাধিক পরিবার গৃহহীন হয়েছে। জানা যায়,আজ মঙ্গলবার দুপুর দুইটার দিকে কেদারপুর ইউনিয়নের সাধুরবাজার লঞ্চঘাটে ৩০ মিটার জায়গা নদীতে ধসে পরে। তখন আটটি দোকান নদীতে বিলীন হয়ে যায়। এসময় সেখানে একটি দোকান থেকে মাহিন্দ্র গাড়িতে সিমেন্ট তুলছিলেন ১৫ জন শ্রমিক। ওই মাহিন্দ্র গাড়ি নিয়ে শ্রমিকরা নদীতে পড়ে যায়। এছাড়া দোকান ও লঞ্চঘাটে আরো কয়েকজন নদীতে তলিয়ে যায়। এ ঘটনার পর স্থানীয়রা ইঞ্জিনচালিত নৌকা দিয়ে ১২ ব্যক্তিকে উদ্ধার করেন। তাদের নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করা হয়। আহত ইমাম হোসেন কোটোয়ারি ও আব্দুল হাই বকস ছৈয়ালকে গুরুতর অবস্থায় চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। এদিকে নিখোঁজদের সন্ধানে ফায়ার সার্ভিসের শরীয়তপুর,মাদারীপুর ও ফরিদপুরের পাঁচটি দল কাজ করছে। নদীর তীরবর্তী মানুষের স্থাপনা সরিয়ে নেয়ার জন্য উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জহিরুল ইসলাম জাকিরের নেতৃত্বে উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ সদস্যরা কাজ করছে।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')