bangladesh
 22 Nov 17, 10:14 AM
 187             0

সুন্দরবনে বন্দুক যুদ্ধে জলদস্যু মুন্না বাহিনীর সেকেন্ড-ইন-কমান্ড গামা নিহত, ১১ জিম্মি উদ্ধার।।  

সুন্দরবনে বন্দুক যুদ্ধে জলদস্যু মুন্না বাহিনীর সেকেন্ড-ইন-কমান্ড গামা নিহত, ১১ জিম্মি উদ্ধার।।   

নিউজ ডেস্কঃ সুন্দরবনে পুলিশের সঙ্গে 'বন্দুকযুদ্ধে'এক বনদস্যু নিহত হয়েছেন।গতকাল মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে পশ্চিম সুন্দরবনের আড়পাঙ্গাসিয়া নদীর বাটলু ভায়রার খাল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ১১জন জিম্মি জেলে,দুটি নৌকা এবং ২টি অস্ত্র ও ৫ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে। নিহত বনদস্যুর নাম পলাশ ওরফে গামা মণ্ডল (৩৫)। তিনি দস্যু মুন্না বাহিনীর সেকেন্ড-ইন-কমান্ড। নিহতের বাড়ি খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার ৭নাং শোভনা ইউনিয়নের কাকমারি গ্রামে, পিতা যতিন মন্ডল। কয়রা থানার ওসি এনামুল হক বলেন,বনদস্যু মুন্না বাহিনীর সদস্যরা মুক্তিপণের দাবিতে ১১জন জেলেকে জিম্মি করে। এ খবর পেয়ে গতকাল মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৭টায় তারা সুন্দরবনের আড়পাঙ্গাসিয়া নদীর ভায়রার খাল এলাকায় অভিযান শুরু করেন। এ সময় দস্যুরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে থাকে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে গুলি করে। এক পর্যায়ে মুন্না বাহিনী পিছু হটে। এ সময় ঘটনাস্থলে মুন্না বাহিনীর সেকেন্ড-ইন-কমান্ড পলাশ ওরফে গামাকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। পরে কয়রা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে ১১জন জিম্মি জেলে,দুটি নৌকা এবং শাটার গান,টুটুবোর রাইফেল ও ৫ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া উভয়পক্ষের গোলাগুলিতে কয়রা থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই রাজিউল আমিন এবং কনস্টেবল মো. লিটন ও হারিজ আহত হন বলেও জানিয়েছে পুলিশ।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')