bangladesh
 21 May 20, 10:20 PM
 94             0

সাইক্লোন আম্ফানে আঘাতে ধ্বংসস্তূপে পরিনত হয়েছে খুলনার দক্ষিনের জনপদ দাকোপ॥

সাইক্লোন আম্ফানে আঘাতে ধ্বংসস্তূপে পরিনত হয়েছে খুলনার দক্ষিনের জনপদ দাকোপ॥

দাকোপ সংবাদদাতাঃ সুপার সাইক্লোন আম্পানের তান্ডবে খুলনার দক্ষিনের জনপদ দাকোপ উপজেলার প্রায় ১২ শ’ ঘরবাড়ী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বিধ্বস্ত হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে ৩ কিলোমিটার বন্যা নিয়ন্ত্রন বেড়ীবাধ ও ৯ হাজার ঘরবাড়ী। বেড়ীবাধের বাইরে থাকা ৩ শতাধীক ঘরবাড়ী ভেসে সাফ হয়ে গেছে। আজ খুলনা বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসক ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করেছেন। এসময় তারা ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে নগদ অর্থ ও খাদ্য সামগ্রী বিতরন করেছেন। গতকাল বুধবার দিনভর ভারী বৃষ্টির হলেও সন্ধ্যার পর শুরু হয় ঝড়ো হাওয়া ।আর সময়ের সাথে সাথে ঝড়ের গতিবেগও বাডতে থাকে। প্রায় রাতভর ধরে চলা ঝড়ের তান্ডবে দাকোপ উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন ও চালনা পৌরসভায় ১১শ’ ৪৫টি ঘরবাড়ী ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সম্পূর্ন রুপে বিধ্বস্ত হয়েছে। আর আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৯ হাজার ১শ’ ২০টি ঘরবাড়ী ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

উপজেলার তিলডাঙ্গা, পানখালী ও সুতারখালী ইউনিয়নে প্রায় ৩ কিলোমিটার ওয়াপদা বেড়ীবাঁধ মারাত্নক ক্ষতি হয়েছে। এ ছাড়া ৬ শতাধীক গাছ ঝড়ে উপড়ে পড়েছে। ঝড়ে ফসল ও সবজির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শেখ আব্দুল কাদের। ঝড়ের প্রভাবে নদীতে অস্বাভাবিকভাবে জল বৃদ্ধি পাওয়ায় উপজেলার গুনারী, নলিয়ান, কালাবগী ও বানীশান্তা এলাকায় বেড়ীবাধের বাইরে বসবাসরত ৩ শতাধীক ঘরবাড়ী ভেসে গেছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে দাকোপের ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করেন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার ড. মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন হাওলাদার এবং খুলনা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন। এ সময় তারা তিলডাঙ্গা ইউনিয়নের ক্ষতিগ্রস্থ বেড়ীবাঁধ ও বটবুনিয়া বাজারের ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করেন।

উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে বিভাগীয় কমিশনার বিপদে সাহস রাখার আহবান জানিয়ে সরকারের পক্ষ থেকে সাধ্যমত সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস দেন। তারা বটবুনিয়া বাজারের ক্ষতিগ্রস্থ ৪০ ব্যবসায়ী পরিবারের মাঝে পরিবার প্রতি নগত ৬ হাজার টাকা, ২ বান্ড ঢেউটিন ও খাদ্য সামগ্রী বিতরন করেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন খুলনার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক জিয়াউর রহমান, দাকোপ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুনসুর আলী খান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আবদুল ওয়াদুদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ আবুল হোসেন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) তারিফ উল হাসান, চালনা পৌরসভার মেয়র সনত কুমার বিশ্বাস, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান গৌরপদ বাছাড়, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান খাদিজা আকতার, থানা অফিসাস ইনচার্জ মোঃ সফিকুল ইসলাম চৌধুরী প্রমুখ।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')