bangladesh
 22 May 20, 11:24 AM
 60             0

আম্পানের পর স্বাভাবিক হয়েছে মোংলা বন্দর॥ শুরু হয়েছে মালামাল ওঠানামার কাজ

আম্পানের পর স্বাভাবিক হয়েছে মোংলা বন্দর॥ শুরু হয়েছে মালামাল ওঠানামার কাজ

নিউজ ডেস্কঃ ঘূর্ণিঝড় আম্পানের আঘাতে মোংলার পশুর নদীতে একটি ট্যুরিস্ট লঞ্চ ডুবে গেছে। এছাড়া ছোটখাটো আরও কিছু নৌকা ও ট্রলারডুবির খবর পাওয়া গেছে। পৌরসভাসহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ কাঁচা ঘরবাড়ি ও গাছপালার ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বাঁধ ভেঙে প্লাবিত হয়েছে কয়েকটি গ্রাম ও অসংখ্য চিংড়ি ঘের। অনেক জায়গায় ইটের রাস্তাও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এদিকে বন্ধ থাকার পর বন্দরের জাহাজে মালামাল ওঠানামার কাজসহ সব অপারেশন কাজ বৃহস্পতিবার (২১ মে) থেকে পুনরায় চালু হয়েছে। সকালে কানাইনগর প্লাবিত স্থান ও ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় পরিদর্শন করেছে উপজেলা প্রশাসন ও নৌবাহিনীর সদস্যরা। ক্ষতিগ্রস্ত এ সব অসহায় মানুষের প্রাথমিক পর্যায় ত্রাণ সহায়তা ও সকালে আশ্রয় কেন্দ্রে নেয়াদের মাঝে খাবারও বিতরণ করা হয়েছে।

মোংলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. রাহাত মান্নান বলেন, ঘূর্ণিঝড় আম্পানের আঘাতে মোংলায় বেশ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বুধবার বিকেল থেকে যখন ঘূর্ণিঝড় আঘাত-হানে তখন উপজেলার ইউনিয়নগুলোতে মানুষের কাঁচা ঘরবাড়ি ও রাস্তাঘাট ভেঙে গেছে। উপড়ে পড়েছে অনেক মূল্যবান গাছপালা। ঝড়ের সময় স্লাইকোন শেল্টারে আশ্রয় নেয়া লোকজনের মাঝে বৃহস্পতিবার সকালেও খাবার বিতরণ করেছে উপজেলা প্রশাসনের সদস্যরা। বুধবার দিনে এবং রাতে আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে আশ্রয় নিয়েছিল বেশ কিছু মানুষ। রাতে ঝড় কিছুটা কমে যাওয়ায় তারা এখন নিজ বাড়িতে চলে গিয়েছেন। তবে ঝড়ে প্রকৃত ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন চেয়ারম্যানদের তালিকা পাওয়ার পর জানানো হবে বলেও জানান তিনি।

এদিকে উপজেলার চাদঁপাই ইউনিয়নের পশুর নদীর তীরবর্তী কানাইনগর, কলাতলা, সুন্দরতলাসহ বিভিন্ন জায়গার দুর্বল বেড়িবাঁধের কয়েকটি জায়গা ধসে পানিতে তলিয়ে গেছে। তবে আবহাওয়া অফিসের দেয়া পূর্বাভাস অনুযায়ী, কয়েক ফুট উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসের কথা বলা হলেও মোংলা সমুদ্র বন্দরের পশুর চ্যানেলসহ সুন্দরবনের নদ-নদীর পানির উচ্চতা স্বাভাবিকের চেয়ে কিছুটা বৃদ্ধি পায়। এ ছাড়া পানিতে অসংখ্য পুকুর ও চিংড়ি ঘের তলিয়ে যাবার খবর পাওয়া গেছে। উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা এ জেড এম তৌহিদুর রহমান জানান, চিংড়ি অধ্যুষিত মোংলা এলাকায় পুকুর ও চিংড়ি ঘের তলিয়ে যাওয়ার খবর নিশ্চিত করেছেন। ঝড়ের তাণ্ডবে বুধবার রাত ১টার দিকে কানাইনগর এলাকায় পশুর নদীর বেড়িবাঁধ ভেঙে কয়েকটি বাড়ি তলিয়ে যায়।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')