lifestyle
 29 Oct 18, 07:18 AM
 117             0

হৃদরোগের ঝুঁকি কমায় টমেটো

হৃদরোগের ঝুঁকি কমায় টমেটো

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ টমেটো শীতের সবজি হলেও আজকাল সারাবছরই পাওয়া যায়। পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ টমেটোকে সুপার ফুড বলা হয় কারণ এটি একই সঙ্গে ত্বক, ওজন কমানো এবং হৃদরোগের জন্য সমান উপকারী। কাধিক গবেষণায় দেখা গেছে, এই সবজিটিতে উপস্থিত লাইকোপেন এবং বিটা ক্যারোটিন উপাদান শরীরের ক্ষতিকর টক্সিক উপাদান বের করতে সাহায্য করে। সেই সঙ্গে এটি স্ট্রেস লেভেলও কমিয়ে দেয়। এ কারণে এটি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে দারুন কার্যকরী। টমেটোতে উপস্থিত ভিটামিন ই, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং পটাশিয়াম নানাভাবে শরীরকে চাঙ্গা রাখতে ভূমিকা রাখে। একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে, নিয়মিত একটা করে কাঁচা টমেটো অথবা এক গ্লাস টমাটোর রস খেলে শরীরের ভিতরে ফাইবারের মাত্রা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। ফলে অনেকক্ষণ পেট ভরা থাকে। আর পেট ভরা থাকলে স্বাভাবিকভাবেই খাওয়ার পরিমাণও কমে। তখন ওজন নিয়ন্ত্রণে আসে।

টমেটোতে ফাইবারের পরিমাণ বেশি থাকায় এটি শরীর খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। সেই সঙ্গে হৃদরোগের ঝুঁকিও কমে। টমাটোয় উপস্থিত লাইকোপেন, লুটেন এবং বিটা-ক্যারোটিন দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। সেই সঙ্গে চোখের ছানি পড়া রোধ করে। টমাটোয় প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম থাকায় হাড় গঠনে এটি সহায়তা করে। নিয়মিত টমেটো খেলে একই সঙ্গে দেহে ভিটামিন ও খনিজের চাহিদা অনেকাংশে পূরণ হয়। ফলে দেহের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। টমাটোতে উপস্থিত অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এবং ভিটামিন সি শরীরে ক্যান্সার সেলের জন্ম আটকাতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে ,বাড়ির বাইরে বেরনোর আগে যদি অল্প করে টমাটোর রস মুখে লাগিয়ে নেওয়া যায়, তাহলে অতি বেগুনি রশ্মির কারণে ত্বকের কোনও ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা কমে। এছাড়া নিয়মিত টমেটোর রস ব্যবহার করলে ত্বকে বলিরেখা পড়া রোধ করা যায়। সেই সঙ্গে ত্বকে পুষ্টির ঘাটতি দূর হয়।ফলে ত্বক টানটান থাকে।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')