sports
 25 Jun 18, 06:12 PM
 136             0

রাশিয়াকে ৩-০ গোলে হারলো উরুগুয়ে।।মিশরের বিপক্ষে জয়ী হল সৌদি আরব  

রাশিয়াকে ৩-০ গোলে হারলো উরুগুয়ে।।মিশরের বিপক্ষে জয়ী হল সৌদি আরব   

স্পোটস ডেস্কঃ স্বাগতিক রাশিয়াকে হারিয়ে "এ" গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হলো উরুগুয়ে। আজ রাত ৮টায় শীর্ষস্থান দখলের লড়ায়ে নামে দুই দল। লুইস সুয়ারেজ ও দিয়েগো ল্যাক্সল্ত এবং কাভানির নৈপুণ্যে ৩-০ গোলের জয় পায় উরুগুয়ে। গ্রুপ পর্বে তিনটি ম্যাচ খেলে তিনটিতেই জয় পেল উরুগুয়ে। এর আগে তারা মিসরকে ১-০ গোলে ও সৌদি আরবকে ১-০ গোলে হারিয়েছিল। শুরুতেই এগিয়ে যায় উরুগুয়ে। ১০ মিনিটে গোলটি করেন সুয়ারেজ। ফ্রি-কিক থেকে চতুরতার সঙ্গে সুয়ারেজ বল পাঠিয়ে দেন জালে। আন্তর্জাতিক ফুটবলে সুয়ারেজের এটি ৫৩তম গোল। আর বিশ্বকাপে এটি তার সপ্তম গোল। এরপর ২৩তম মিনিটে আত্মঘাতী গোল করেন রাশিয়ার ডেনিস চেরিশেভ। ডি-বক্সের সামনে থেকে দিয়েগো ল্যাক্সাল্ট গোল লক্ষ্য করে শট করেন। বলটি ডেনিস চেরিশেভের পায়ে লেগে জালে পৌঁছে যায়। ৩৬তম মিনিটে দশ জনের দলে পরিণত হয় রাশিয়া। ম্যাচে দ্বিতীয়বার হলুদ কার্ড দেখায় মাঠ ছাড়েন আইগোর স্মোলনিকোভ। ম্যাচ তখন প্রায় শেষের দিকে এমন সময় ব্যবধান ৩-০ করে উরুগুয়ে। ৯০তম মিনিটে গোলটি করেন এডিনসন কাভানি। বাকি সময়ে কোনো গোল না হওয়ায় ৩-০ ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে উরুগুয়ে।

এদিকে অন্য ম্যাচে বাঁশি বাজার ঠিক আগ মুহূর্তে অসাধারণ গোলে রাশিয়া বিশ্বকাপে প্রথম জয়ের দেখা পেয়েছে সৌদি আরব। শেষ মুহূর্তের এই গোলে ২-১ ব্যবধানে মিশরকে হারিয়েছে সৌদি। ৯৫ মিনিটে মিশর ডিফেন্সকে ফাঁকি দিয়ে নিচু ভলিতে গোলবারের কোণা দিয়ে বল জালে জড়িয়ে দলের জয় নিশ্চিত করেন সৌদি আরবের মিডফিল্ডার সালেম আল দাউসারি। প্রথমার্ধের বিরতি শেষে মিশর রক্ষণকে প্রচণ্ড চাপে রাখে সৌদি আরব।
পুরো ম্যাচে স্পষ্ট আধিপত্য দেখিয়েছে সৌদি।বিপরীতে মিশরের খেলা অনেকটা ছন্নছাড়া। মাত্র একবারই টার্গেট লক্ষ্য করে শট করতে সক্ষম হয়েছে হেক্টর কুপারের দল। আর তা থেকে গোলও পেয়েছে। ম্যাচের প্রথম গোল আসে মিশরীয় তারকা মোহামেদ সালাহ’র পা থেকে। তবে মিশরের জন্য স্বস্তির মুহূর্ত ওই একবারই ধরা দেয়। প্রথমার্ধের শেষ বাঁশি বাজার ঠিক ১ মিনিট আগে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। এবার মিশরের ডি বক্সে ফাউলের শিকার হন প্রথম পেনাল্টি মিস করা সৌদি আরবের ফাহাদ। ফাউল করা আলি গাবরকে হলুদ কার্ড দেখান রেফারি। পরে ভিএআর’র সহায়তা নিয়ে পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন রেফারি। এবার অবশ্য গোল মিস করেন নি সৌদি আরবের ফারাজ। এর মিনিট পাঁচেক আগেই পেনাল্টি থেকে গোল করার সুযোগ মিস করে সৌদি আরব। ম্যাচের ৪১ মিনিটে নিজেদের ডি বক্সে হ্যান্ড বল করেন মিশরীয় ডিফেন্ডার আহমেদ ফাতহি। পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। সমতায় ফেরার দারুণ এক সুযোগ পেয়ে যায় সৌদি আরব। কিন্তু সৌদি ফরোয়ার্ড ফাহাদের পেনাল্টি শট ডান দিকে ঝাপ দিয়ে ঠেকিয়ে দেন বিশ্বকাপের ইতিহাসে সবচেয়ে বয়সী ফুটবলারের রেকর্ড গড়া এল-হাদারি। কিন্তু পরের বার আর সফল হতে পারেন নি এই বর্ষীয়ান গোলরক্ষক। প্রথমার্ধের ১-১ গোলের সমতা শেষ বাঁশি বাজার আগ পর্যন্ত অক্ষুণ্ণ থাকে। কিন্তু ম্যাচের শেষ মুহূর্তে ৯৫ মিনিট আল দাউসারির ওই অসাধারণ গোলে জয় নিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপ মিশন শেষ করলো সৌদি আরব। অন্যদিকে সবগুলো ম্যাচেই পরাজয়ের জ্বালা নিয়ে শেষ হল মিশরের বিশ্বকাপ মিশন

স্পোটস ডেস্কঃ স্বাগতিক রাশিয়াকে হারিয়ে "এ" গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হলো উরুগুয়ে। আজ রাত ৮টায় শীর্ষস্থান দখলের লড়ায়ে নামে দুই দল। লুইস সুয়ারেজ ও দিয়েগো ল্যাক্সল্ত এবং কাভানির নৈপুণ্যে ৩-০ গোলের জয় পায় উরুগুয়ে। গ্রুপ পর্বে তিনটি ম্যাচ খেলে তিনটিতেই জয় পেল উরুগুয়ে। এর আগে তারা মিসরকে ১-০ গোলে ও সৌদি আরবকে ১-০ গোলে হারিয়েছিল। শুরুতেই এগিয়ে যায় উরুগুয়ে। ১০ মিনিটে গোলটি করেন সুয়ারেজ। ফ্রি-কিক থেকে চতুরতার সঙ্গে সুয়ারেজ বল পাঠিয়ে দেন জালে। আন্তর্জাতিক ফুটবলে সুয়ারেজের এটি ৫৩তম গোল। আর বিশ্বকাপে এটি তার সপ্তম গোল। এরপর ২৩তম মিনিটে আত্মঘাতী গোল করেন রাশিয়ার ডেনিস চেরিশেভ। ডি-বক্সের সামনে থেকে দিয়েগো ল্যাক্সাল্ট গোল লক্ষ্য করে শট করেন। বলটি ডেনিস চেরিশেভের পায়ে লেগে জালে পৌঁছে যায়। ৩৬তম মিনিটে দশ জনের দলে পরিণত হয় রাশিয়া। ম্যাচে দ্বিতীয়বার হলুদ কার্ড দেখায় মাঠ ছাড়েন আইগোর স্মোলনিকোভ। ম্যাচ তখন প্রায় শেষের দিকে এমন সময় ব্যবধান ৩-০ করে উরুগুয়ে। ৯০তম মিনিটে গোলটি করেন এডিনসন কাভানি। বাকি সময়ে কোনো গোল না হওয়ায় ৩-০ ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে উরুগুয়ে।

এদিকে অন্য ম্যাচে বাঁশি বাজার ঠিক আগ মুহূর্তে অসাধারণ গোলে রাশিয়া বিশ্বকাপে প্রথম জয়ের দেখা পেয়েছে সৌদি আরব। শেষ মুহূর্তের এই গোলে ২-১ ব্যবধানে মিশরকে হারিয়েছে সৌদি। ৯৫ মিনিটে মিশর ডিফেন্সকে ফাঁকি দিয়ে নিচু ভলিতে গোলবারের কোণা দিয়ে বল জালে জড়িয়ে দলের জয় নিশ্চিত করেন সৌদি আরবের মিডফিল্ডার সালেম আল দাউসারি। প্রথমার্ধের বিরতি শেষে মিশর রক্ষণকে প্রচণ্ড চাপে রাখে সৌদি আরব।
পুরো ম্যাচে স্পষ্ট আধিপত্য দেখিয়েছে সৌদি।বিপরীতে মিশরের খেলা অনেকটা ছন্নছাড়া। মাত্র একবারই টার্গেট লক্ষ্য করে শট করতে সক্ষম হয়েছে হেক্টর কুপারের দল। আর তা থেকে গোলও পেয়েছে। ম্যাচের প্রথম গোল আসে মিশরীয় তারকা মোহামেদ সালাহ’র পা থেকে। তবে মিশরের জন্য স্বস্তির মুহূর্ত ওই একবারই ধরা দেয়। প্রথমার্ধের শেষ বাঁশি বাজার ঠিক ১ মিনিট আগে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। এবার মিশরের ডি বক্সে ফাউলের শিকার হন প্রথম পেনাল্টি মিস করা সৌদি আরবের ফাহাদ। ফাউল করা আলি গাবরকে হলুদ কার্ড দেখান রেফারি। পরে ভিএআর’র সহায়তা নিয়ে পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন রেফারি। এবার অবশ্য গোল মিস করেন নি সৌদি আরবের ফারাজ। এর মিনিট পাঁচেক আগেই পেনাল্টি থেকে গোল করার সুযোগ মিস করে সৌদি আরব। ম্যাচের ৪১ মিনিটে নিজেদের ডি বক্সে হ্যান্ড বল করেন মিশরীয় ডিফেন্ডার আহমেদ ফাতহি। পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। সমতায় ফেরার দারুণ এক সুযোগ পেয়ে যায় সৌদি আরব। কিন্তু সৌদি ফরোয়ার্ড ফাহাদের পেনাল্টি শট ডান দিকে ঝাপ দিয়ে ঠেকিয়ে দেন বিশ্বকাপের ইতিহাসে সবচেয়ে বয়সী ফুটবলারের রেকর্ড গড়া এল-হাদারি। কিন্তু পরের বার আর সফল হতে পারেন নি এই বর্ষীয়ান গোলরক্ষক। প্রথমার্ধের ১-১ গোলের সমতা শেষ বাঁশি বাজার আগ পর্যন্ত অক্ষুণ্ণ থাকে। কিন্তু ম্যাচের শেষ মুহূর্তে ৯৫ মিনিট আল দাউসারির ওই অসাধারণ গোলে জয় নিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপ মিশন শেষ করলো সৌদি আরব। অন্যদিকে সবগুলো ম্যাচেই পরাজয়ের জ্বালা নিয়ে শেষ হল মিশরের বিশ্বকাপ মিশন।রাশিয়াকে ৩-০ গোলে হারলো উরুগুয়ে।।মিশরের বিপক্ষে জয়ী হল সৌদি আরব

 

স্পোটস ডেস্কঃ স্বাগতিক রাশিয়াকে হারিয়ে "এ" গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হলো উরুগুয়ে। আজ রাত ৮টায় শীর্ষস্থান দখলের লড়ায়ে নামে দুই দল। লুইস সুয়ারেজ ও দিয়েগো ল্যাক্সল্ত এবং কাভানির নৈপুণ্যে ৩-০ গোলের জয় পায় উরুগুয়ে। গ্রুপ পর্বে তিনটি ম্যাচ খেলে তিনটিতেই জয় পেল উরুগুয়ে। এর আগে তারা মিসরকে ১-০ গোলে ও সৌদি আরবকে ১-০ গোলে হারিয়েছিল। শুরুতেই এগিয়ে যায় উরুগুয়ে। ১০ মিনিটে গোলটি করেন সুয়ারেজ। ফ্রি-কিক থেকে চতুরতার সঙ্গে সুয়ারেজ বল পাঠিয়ে দেন জালে। আন্তর্জাতিক ফুটবলে সুয়ারেজের এটি ৫৩তম গোল। আর বিশ্বকাপে এটি তার সপ্তম গোল। এরপর ২৩তম মিনিটে আত্মঘাতী গোল করেন রাশিয়ার ডেনিস চেরিশেভ। ডি-বক্সের সামনে থেকে দিয়েগো ল্যাক্সাল্ট গোল লক্ষ্য করে শট করেন। বলটি ডেনিস চেরিশেভের পায়ে লেগে জালে পৌঁছে যায়। ৩৬তম মিনিটে দশ জনের দলে পরিণত হয় রাশিয়া। ম্যাচে দ্বিতীয়বার হলুদ কার্ড দেখায় মাঠ ছাড়েন আইগোর স্মোলনিকোভ। ম্যাচ তখন প্রায় শেষের দিকে এমন সময় ব্যবধান ৩-০ করে উরুগুয়ে। ৯০তম মিনিটে গোলটি করেন এডিনসন কাভানি। বাকি সময়ে কোনো গোল না হওয়ায় ৩-০ ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে উরুগুয়ে।

এদিকে অন্য ম্যাচে বাঁশি বাজার ঠিক আগ মুহূর্তে অসাধারণ গোলে রাশিয়া বিশ্বকাপে প্রথম জয়ের দেখা পেয়েছে সৌদি আরব। শেষ মুহূর্তের এই গোলে ২-১ ব্যবধানে মিশরকে হারিয়েছে সৌদি। ৯৫ মিনিটে মিশর ডিফেন্সকে ফাঁকি দিয়ে নিচু ভলিতে গোলবারের কোণা দিয়ে বল জালে জড়িয়ে দলের জয় নিশ্চিত করেন সৌদি আরবের মিডফিল্ডার সালেম আল দাউসারি। প্রথমার্ধের বিরতি শেষে মিশর রক্ষণকে প্রচণ্ড চাপে রাখে সৌদি আরব।
পুরো ম্যাচে স্পষ্ট আধিপত্য দেখিয়েছে সৌদি।বিপরীতে মিশরের খেলা অনেকটা ছন্নছাড়া। মাত্র একবারই টার্গেট লক্ষ্য করে শট করতে সক্ষম হয়েছে হেক্টর কুপারের দল। আর তা থেকে গোলও পেয়েছে। ম্যাচের প্রথম গোল আসে মিশরীয় তারকা মোহামেদ সালাহ’র পা থেকে। তবে মিশরের জন্য স্বস্তির মুহূর্ত ওই একবারই ধরা দেয়। প্রথমার্ধের শেষ বাঁশি বাজার ঠিক ১ মিনিট আগে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। এবার মিশরের ডি বক্সে ফাউলের শিকার হন প্রথম পেনাল্টি মিস করা সৌদি আরবের ফাহাদ। ফাউল করা আলি গাবরকে হলুদ কার্ড দেখান রেফারি। পরে ভিএআর’র সহায়তা নিয়ে পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন রেফারি। এবার অবশ্য গোল মিস করেন নি সৌদি আরবের ফারাজ। এর মিনিট পাঁচেক আগেই পেনাল্টি থেকে গোল করার সুযোগ মিস করে সৌদি আরব। ম্যাচের ৪১ মিনিটে নিজেদের ডি বক্সে হ্যান্ড বল করেন মিশরীয় ডিফেন্ডার আহমেদ ফাতহি। পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। সমতায় ফেরার দারুণ এক সুযোগ পেয়ে যায় সৌদি আরব। কিন্তু সৌদি ফরোয়ার্ড ফাহাদের পেনাল্টি শট ডান দিকে ঝাপ দিয়ে ঠেকিয়ে দেন বিশ্বকাপের ইতিহাসে সবচেয়ে বয়সী ফুটবলারের রেকর্ড গড়া এল-হাদারি। কিন্তু পরের বার আর সফল হতে পারেন নি এই বর্ষীয়ান গোলরক্ষক। প্রথমার্ধের ১-১ গোলের সমতা শেষ বাঁশি বাজার আগ পর্যন্ত অক্ষুণ্ণ থাকে। কিন্তু ম্যাচের শেষ মুহূর্তে ৯৫ মিনিট আল দাউসারির ওই অসাধারণ গোলে জয় নিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপ মিশন শেষ করলো সৌদি আরব। অন্যদিকে সবগুলো ম্যাচেই পরাজয়ের জ্বালা নিয়ে শেষ হল মিশরের বিশ্বকাপ মিশন।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')