sports
 27 Sep 18, 05:07 AM
 138             0

তৃতীয়বারের মতো এশিয়া কাপের ফাইনালে বাংলাদেশ  

তৃতীয়বারের মতো এশিয়া কাপের ফাইনালে বাংলাদেশ   

স্পোর্টস ডেস্কঃ এশিয়া কাপের আসরে তৃতীয়বারের মতো ফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের সামনে সুযোগ ছিল ফাইনালে যাওয়ার। আসন্ন এশিয়া কাপের পাকিস্তানের বিপক্ষে অঘোষিত সেমিফাইনালে সেই সুযোগকে বাস্তব রূপ দিল বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। এদিন পাকিস্তানকে হারিয়ে বাংলাদেশ পৌঁছে গেল এশিয়া কাপের ফাইনালে। ফাইনালে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ ভারত। মুশফিকুর রহিম ও মোহাম্মদ মিথুনের ব্যাটে ভর করে এশিয়া কাপের সুপার ফোরের ম্যাচে পাকিস্তানকে ২৪০ রানের টার্গেট দেয় বাংলাদেশ। ২৪০ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই পাকিস্তানকে চেপে ধরে মাশরাফি বাহিনী। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ২০২ রান করে পাকিস্তান। ফলে ৩৭ রানের জয় নিয়ে ১৪ তম এশিয়া কাপের ফাইনাল নিশ্চিত করে বাংলাদেশ। এ নিয়ে এশিয়া কাপের আসরে তৃতীয়বারের মতো ফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ। এর আগে ২০১২ ও ২০১৪ সালে ঘরের মাঠে এশিয়া কাপের ফাইনালে উঠেছিল তারা। দু'বার রানার্সআপ হয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছিল তাদের। ২৪০ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে পাকিস্তান দলীয় মাত্র ১৮ রানে তিন উইকেট হারিয়ে বসে তারা। এরপর চতুর্থ উইকেট জুটিতে শোয়েব মালিক ও ইমাম-উল হক মিলে ৬৭ রানের জুটি গড়েন। তখনই সাজঘরে ফিরেন শোয়েব (৩০)। কিছুক্ষণের মধ্যে ফিরেন শাদাব খানও (৪)। পরে ইমাম ৮৩ রানের ইনিংস খেলে দলকে এগিয়েও নিয়েছিলেন। তাকে যোগ্য সহায়তা দিয়েছিলেন আসিফ আলী (৩১)। কিন্তু দুজনেই ফিরে গেলে সেই অবস্থা থেকে আর কাটিয়ে উঠতে পারেনি পাকিস্তান। বাংলাদেশের পক্ষে বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমান ৪৩ রানে চার উইকেট নিয়ে পাকিস্তানের ব্যাটিং ধস নামান। মেহেদী হাসান মিরাজ ২৮ রানে দুটি এবং রুবেল হোসেন, মাহমুদউল্লাহ ও সৌম্য সরকার একটি করে উইকেট পান।


এর আগে এদিন টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। কিন্তু উদ্বোধনী জুটি তার আস্থার প্রতিদান দিতে পারেনি। দলীয় ৫ রানের মাথায় ০ রানে সাজঘরে ফিরেন সৌম্য। এরপর ১২ রানের মাথায় পরপর দুই উইকেটের পতন। মুমিনুল ৫ রান করে বোল্ড হন শাহিন শাহের বলে। আর ৬ রানে জুনায়েদ খানের শিকারে পরিণত হন লিটন দাস। সেখান থেকে ১৪৪ রানের জুটি গড়েন মোহাম্মদ মিথুন ও মুশফিকুর রহিম। মিথুন ফিরেন ৬০ রানে। তবে অল্পের জন্য সেঞ্চুরি বঞ্চিত হয়েছেন মুশফিক ৯৯ রানে আউট হন তিনি। পাকিস্তানের হয়ে জুনায়েদ খান ৪টি, শাহিন শাহ আফ্রিদি ও হাসান আলী ২টি শাদাব খান ১টি উইকেট নিয়েছেন।

 

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ-

ফলাফলঃ- ৩৭ রানে জয়ী বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ ইনিংস:- ২৩৯ (৪৮.৫ ওভার) (লিটন দাস ৬, সৌম্য সরকার ০, মুমিনুল হক ৫, মুশফিকুর রহিম ৯৯, মোহাম্মদ মিথুন ৬০, ইমরুল কায়েস ৯, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ২৫, মেহেদী হাসান মিরাজ ১২, মাশরাফি বিন মুর্তজা ১৩, রুবেল হোসেন ১, মোস্তাফিজুর রহমান ০*‍; জুনায়েদ খান ৪/১৯, শাহীন শাহ আফ্রিদি ২/৪৭, হাসান আলী ২/৬০, মোহাম্মদ নওয়াজ ০/৩৯, শোয়েব মালিক ০/১৪, শাদব খান ১/৫২)।

পাকিস্তান ইনিংস:- ২০২/৯ (৫০ ওভার) (ফখর জামান ১, ইমাম-উল-হক ৮৩, বাবর আজম ১, সরফরাজ আহমেদ ১০, শোয়েব মালিক ৩০, শাদব খান ৪, আসিফ আলী ৩১, মোহাম্মদ নওয়াজ ৮, হাসান আলী ৮, শাহীন শাহ আফ্রিদি ১৪*, জুনায়েদ খান ৩*; মেহেদী হাসান মিরাজ ২/২৭, মোস্তাফিজুর রহমান ৪/৪৩, মাশরাফি বিন মুর্তজা ০/৩৩, রুবেল হোসেন ১/৩৮, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ১/৩৮, সৌম্য সরকার ১/১৯)।

ম্যান অপ দ্যা ম্যাচঃ মুশফিকুর রহিম

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')