News71.com
 Bangladesh
 10 Jul 21, 10:49 PM
 48           
 0
 10 Jul 21, 10:49 PM

সিলেটে অস্ত্রহাতে প্রতিপক্ষকে ভয়ঙ্কর হামলা করলেন নারীরা॥  

সিলেটে অস্ত্রহাতে প্রতিপক্ষকে ভয়ঙ্কর হামলা করলেন নারীরা॥   

নিউজ ডেস্কঃ অস্ত্রহাতে নারীরাও ভয়ঙ্কর হতে পারেন। এতোদিন তা সিনেমায় দেখা গেছে। এবার বাস্তবে দেখা মিলল প্রতিপক্ষকে ধরাশায়ী করতে ধারালো অস্ত্রহাতে নারীদের হামলার দৃশ্য। প্রতিপক্ষের ঘরে হামলা করতে নেতৃত্ব দিয়েছেন সালেহা, কুলসুমা, মরিয়ম ও রহিমারা। তাদের সঙ্গে হামলায় যোগ দিয়েছেন কয়েকজন যুবক। ঘটনাটি ঘটেছে সিলেটের কানাইঘাটের লক্ষ্মীপাশা পূর্ব ইউনিয়নের ভারত সংলগ্ন সীমান্ত এলাকা কারাবাল্লা গ্রামে। শুক্রবার (৯ জুলাই) বিকেলে জমি সংক্রান্ত বিরোধ নিয়ে হামলার এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সালেহা, কুলসুমা, মরিয়ম ও রহিমাসহ ১১ জনের নামোল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৬/৭ জনকে আসামি করে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী ওই গ্রামের মঈন উদ্দিন লুকু।

কানাইঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম পিপিএম এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ নিয়ে ঘটনাটি শুক্রবার বিকেলে ঘটেছে। শনিবার (১০ জুলাই) বিকেলে এ ঘটনার ভিডিও ফুটেজ দেখে ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের থানায় আনা হচ্ছে।তিনি বলেন, ঘটনাস্থল সীমান্তবর্তী দুর্গম এলাকায়। থানা থেকে প্রায় ২০ কিলোমিটার দূরে। তাও একাধিকস্থানে পায়ে হেঁটে ও নৌকায় যাওয়া লাগে। শনিবার সকালে রওনা হয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে দুপুরের পরে পৌঁছায়। গ্রেফতারকৃতদের নিয়ে থানার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন পুলিশ সদস্যরা। মামলার বরাত দিয়ে তিনি বলেন, মইনুদ্দিন লুকুর সঙ্গে সালেহা বেগম পরস্পর চাচাতো ভাই বোন। বিরোধপূর্ণ জায়গায় একটি টিন শেড ঘর নির্মাণ করেন মইনুদ্দিন লুকু। শুক্রবার বিকেলে সালেহা বেগমসহ সঙ্গীরা হামলা করে সেই টিনের ঘর ভেঙে ফেলেন এবং বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন।

এ ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, হামলাকারী নারীরা হাতে দা নিয়ে হামলা করছেন। টিনশেড ঘরে দা দিয়ে কুপিয়ে ছিন্নবিচ্ছিন্ন করতে দেখা যায়। এসময় জনৈক যুবক টিনশেড ঘরের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেন। হামলাকারীরা উচ্চস্বরে চিৎকার করে ঘরে কোপাচ্ছিলেন। এসময় স্থানীয়রা মোবাইল ফোনে ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছেড়ে দেন।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন